শিরোনাম
ম্যাক্রোঁর ইসলাম বিদ্বেষী কর্মকাণ্ডের সমর্থনে ভারতজুড়ে হ্যাশট্যাগ নাজিরহাট মাদ্রাসার মুহতামিম নির্ধারণের লক্ষ্যে মজলিসে শূরার বৈঠক আজ আগামী শুক্রবার বাদ জুমা সারাদেশে হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশকারী ফ্রান্সের ম্যাগাজিন ‘শার্লি হেবদো’র ওয়েবসাইটে সাইবার হামলা চালিয়ে ডাউন করেছে বাংলাদেশি হ্যাকাররা ফ্রান্সের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সবার আগে জুনাইদের বুক থাকবে : আল্লামা বাবুনগরী পেশোয়ারের মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে আল্লামা তাকী উসমানী ফ্রান্সে মহানবীর অবমাননার প্রতিবাদে জামিয়া বাবুনগরের মসজিদে প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত ফ্রান্সের তাগুতি শক্তি অচিরেই ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবে : খেলাফতে যুব মজলিস চট্টগ্রাম পাকিস্তানের পেশোয়ারে মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী হামলা; নিহত ৭, আহত ৭০ এর অধিক ‘ফরাসি পণ্য বয়কট করুন’: তুর্কি জনগণের প্রতি এরদোগানের আহ্বান
বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৩ অপরাহ্ন
add

অবশেষে ৩ অক্টোবর পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন বেফাকের বিতর্কিত মহাসচিব আবদুল কুদ্দুস

কওমি ভিশন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
add

গতকাল মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাকের কেন্দ্রীয় অফিসে খাস কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বৈঠকে তাকে পদত্যাগ করতে বলা হলে তিনি আগামী ৩ অক্টোবর বেফাকের আমেলা বৈঠকে পদত্যাগ করবেন বলে জানান।

বেফাকের বর্তমান মহাসচিবের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠার পর তার পদত্যাগ নিয়ে বিভিন্ন মহল  থেকে আওয়াজ উঠে। দুর্নীতির অভিযোগ আসার পর দুর্নীতি তদন্তে একটি কমিটি গঠন করা হলেও এখনও পর্যন্ত কোনো প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়নি।

ঢাকার ফরিদাবাদ মাদ্রাসার মুহতামিম ও শাইখুল হাদিস মাওলানা আবদুল কুদ্দুস আল্লামা আহমদ শফী রহ. -এর পুত্র মাওলানা আনাসের খুবই ঘনিষ্ঠজন। আল্লামা আহমদ শফীর নাম ব্যবহার করে নানা অপকর্ম করে আসার অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। কল রেকর্ড ফাঁস এবং দুর্নীতির প্রমাণ সোশ্যাল মিডিয়াতে আসার পরও তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। আল্লামা আহমদ শফীর ইনতিকালের পর অবশেষে তিনি পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন।

 

২০১৬ সালের বেফাকের দীর্ঘ সময়ের মহাসচিব মাওলানা আবদুল জব্বার জাহানাবাদীর ইন্তেকালের পর প্রথমে ভারপ্রাপ্ত পরে কাউন্সিলে মহাসচিব নির্বাচিত হন মাওলানা আবদুল কুদ্দুস।

স্বীকৃতি অর্জনের পেছনে বিশেষ ভূমিকা রাখা আল্লামা আশরাফ আলী ছিলেন বেফাকের সিনিয়র সহসভাপতি এবং হাইয়াতুল উলইয়ার প্রতিষ্ঠাতা কো-চেয়ারম্যান ছিলেন। গত বছরের ডিসেম্বরে তিনি ইন্তেকাল করলে শূন্য হয় গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদ- বেফাকের সিনিয়র সহসভাপতি ও আল হায়াতুল উলইয়ার কো-চেয়ারম্যান। পদ দুটির জন্য উপযুক্ত ব্যক্তি কিংবা আগ্রহ থাকলেও বিশেষ ক্ষমতা বলে পদ দখল করেন মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস।

Leave a comment

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: