শিরোনাম
কওমি ভিশনের ব্যবস্থাপনায় ভাষা সাহিত্য ও সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন ১২ দিনব্যাপী ভাষা, সাহিত্য ও সাংবাদিকতা কোর্সে ভর্তি চলছে খাগড়াছড়িতে ইমামদের সাথে খুদ্দামুল কুরআনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি : পেন্টাগন অভিজিৎ হত্যার রায়, বিচারের নামে তামাশা : হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ নোয়াখালীর মির্জা কাদের ইসলাম বিদ্বেষী, তাকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন : হেফাজত ‘হেফাজত নেতা মাওলানা জসিম উদ্দিনকে ছুরিকাঘাতে রক্তাক্তকারী সন্ত্রাসীকে জামাই আদরে রাখা হয়েছে’ টানা ৫০ দিন জামাতের সাথে নামাজ আদায় করে সাইকেল উপহার পেল সাত বছরের শিশু আবদুল্লাহ করোনার কারণে অসমাপ্ত সিলেবাস : বেফাকের ৪৪তম কেন্দ্রীয় পরীক্ষার বিষয়ে নতুন ঘোষণা আল জাজিরার সম্প্রচার বন্ধের বিষয়ে রিটের পরবর্তী শুনানি বুধবার
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০১:৩৪ অপরাহ্ন
add

মিথ্যা মামলা দিয়ে একটি কুচক্রি মহল দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে

কওমি ভিশন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১
add

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ.এর স্বাভাবিক মৃত্যুকে অস্বাভাবিক আখ্যা দিয়ে মিথ্যা মামলা করে একটি কুচক্রি মহল কওমী অঙ্গনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে। আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যু স্বাভাবিক হয়েছিল, এটি একটি মীমাংসিত বিষয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ইস্যুকৃত ডেথ সার্টিফিকেটেও তাঁর মৃত্যুকে স্বাভাবিক বলা হয়েছে। যা দেশবাসীর সামনে দিবালোকের ন্যায় স্পষ্ট। হযরতের মৃত্যুর জন্য কাউকে দায়ী করা নির্জলা মিথ্যাচার ছাড়া কিছুই নয়। আজ গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমিরগণ এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে হেফাজতের নায়েবে আমিরগণ আরো বলেন, শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. দারুল উলূম হাটহাজারী’র দীর্ঘ সময়ের মহাপরিচালক এবং বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর ছিলেন। তিনি হাটহাজারী মাদরাসাসহ বাংলাদেশের সর্বস্তরের কওমী মাদরাসা সমূহের মুরুব্বি ও অভিভাবক ছিলেন। তার ইন্তিকালে দেশের আলেমসমাজ, মাদরাসার ছাত্র শিক্ষক ও ধর্মপ্রাণ জনসাধারণ

যখন গভীরভাবে শোকাহত তখন তার মিত্যু নিয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের যে অপচেষ্ঠা করা হচ্ছে সকলের কাছে তা স্পষ্ট হয়ে গেছে। তারা বলেন, একটি নির্দিষ্ট দালাল গোষ্ঠী তাদের হীন স্বার্থ উদ্ধারে আল্লামা আহমদ শফী রহ.এর লাশ নিয়ে রাজনীতি করছে এবং কওমী অঙ্গনে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে মাদরাসা বন্ধ করার পাঁয়তারা করছে।

বিবৃতিতে হেফাজতের নায়েবে আমিরগণ বলেন, মাওলানা আনাস মাদানীর দীর্ঘদিনের স্বেচ্ছচারিতা, অনিয়ম, ছাত্র-শিক্ষকদের প্রতি জুলুম-নির্যাতন, নানা দূর্ণীতি ও ছাত্রদের নানাভাবে হয়রানির কারণে বিক্ষুদ্ধ হয়ে ছাত্ররা তাদের ন্যায্য দাবী আদায়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেছে। যার প্রত্যক্ষভাবে স্বাক্ষী মাদরাসার শুরার সদস্য, শিক্ষকমণ্ডলী, কর্মচারীবৃন্দ, প্রশাসন ও স্থানীয় জনগণ। সুতরাং এই ছাত্র আন্দোলনে মাদ্রাসার শিক্ষক, বাহিরের কোনো ব্যক্তি বা সংগঠনের কোন ধরণের উস্কানি বা সম্পৃক্ততা ছিল না। কিন্তু হযরতের মৃত্যুর তিনমাস পর একটি স্বার্থান্বেষী মহল দেশ এবং জাতিকে বিভ্রান্ত করার জন্য তাঁর মৃত্যুকে অস্বাভাবিক আখ্যায়িত করে ৩৬ জন আলেমের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও চক্রান্তমূলক মামলা করেছে। দায়েরকৃত মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে এবং বিবরণে যাদেরকে অভিযুক্ত করা হয়েছে, তারা কেউ এর সাথে সম্পৃক্ত নয়। সুতরাং তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা সম্পূর্ণ মিথ্যা ষড়যন্ত্র ও উদ্দেশ্যমূলক।

হেফাজত নেতৃবৃন্দ বলেন, এই মামলাবাজরা জনবিচ্ছিন্ন একটি একটি চিহ্নিত দালালগোষ্ঠী ও জাতির কাছে এরা প্রত্যাখ্যাত। সুতরাং আমরা সরকারের প্রতি আহবান করছি এই বিচ্ছিন্ন সুবিধাবাদী গোষ্ঠী থেকে দুরে থকুন এবং অনতিবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের ব্যবস্থা করুন। অন্যথায় দেশের ধর্মপ্রাণ মানুষ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে বাধ্য হবে।

বিবৃতিদাতা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমিরগণ হলেন, সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা হাফেজ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী, নায়েবে আমির আল্লামা শায়খ আহমদ হাটহাজারী, আল্লামা মুফতি আহমদুল্লাহ পটিয়া, আল্লামা নুরুল ইসলাম অলিপুরী, আল্লামা আবদুল হামিদ (পীর সাহেব মধুপুর) আল্লামা মুফতি আরশাদ রহমানী,আল্লামা মোহাম্মদ ইয়াহইয়া হাটহাজারী, মাওলানা সাজেদুর রহমান বিবড়ীয়া, মাওলানা সালাহ উদ্দিন নানুপুরী, মাওলানা মুফতি মাহফুজুল হক, মাওলানা মুহিবুল হক গাছবাড়ী, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী, ড. আহমদ আবদুল কাদের, মাওলানা সরোয়ার কামাল আজিজী, মাওলানা আবদুল আউয়াল, ড. মাওলানা আ ফ ম খালিদ হোসেন, মাওলানা হাবিবুর রহমান হাজী সাহেব, মাওলানা আবদুর রব ইউসুফী, মাওলানা মুফতি হাবিবুর রহমান কাসেমী, মাওলানা ফোরকানুল্লাহ খলিল মাওলানা মুফতি জসিম উদ্দিন, হাফেজ তাজুল ইসলাম (পীর সাহেব ফিরোজশাহ) মাওলানা আনোয়ারুল করিম (পীর সাহেব যশোর)মাওলানা মোশতাক আহমদ, মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া, মাওলানা আনাস ভোলা, মাওলানা রশিদ আহমদ কিশোরগঞ্জ, মাওলানা জাফরুল্লাহ খান, মাওলানা নুরুল ইসলাম খান, মাওলানা নেজাম উদ্দিন, মাওলানা ওবায়দুর রহমান মাহবুব বরিশাল, মাওলানা মোহাম্মদ ইউনুস, মাওলানা আব্দুল্লাহ মুহাম্মদ হাসান (পীর সাহেব বাহাদুরপুর), মাওলানা আব্দুস সবুর বগুড়া, মাওলানা আফজালুর রহমান ফেনী, মাওলানা আব্দুল বাছির সুনামগঞ্জ, মাওলানা আইয়ুব বাবুনগর, মাওলানা মহিউল ইসলাম বোরহান রেঙ্গা মাদরাসা, মাওলানা আব্দুল বাছেত আজাদ হবিগঞ্জ, মাওলানা আব্দুল হালিম(বরিশাল) মাওলানা জাহেদুল্লাহ ইছাপুর।

Leave a comment

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: