শিরোনাম
আরব-ইসরাইল সম্পর্কের প্রতিবাদে বাহরাইনে বিক্ষোভ চলছেই হাটহাজারীর ছাত্র বিক্ষোভের সমর্থনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাবেশের ডাক দিলেন ভিপি নুর হাটহাজারিতে আবারো বিক্ষোভে ছাত্ররা, সব দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত মাঠ না ছাড়ার সিদ্ধান্ত দাবি আদায়ের লক্ষ্যে হাটহাজারী মাদ্রাসার মাঠে শান্তিপূর্ণ অবস্থান বিক্ষোভকারীদের আনাস মাদানির বহিষ্কারসহ ৫ দফা দাবিতে উত্তাল হাটহাজারী মাদ্রাসা ইহুদিবাদী ইসরাইলের সাথে আরব দেশের সম্পর্ক ফিলিস্তিনি জনগণ মেনে নেবে না সরকারি চাকরিপ্রার্থীদের বয়সে ৫ মাস ছাড় মুসলিম নির্যাতনের অভিযোগে চীন থেকে পণ্য আমদানি বন্ধ করলো যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য-বিনিয়োগ বৃদ্ধির অঙ্গীকার পূণর্ব্যক্ত করলো তুরস্ক সশস্ত্র লড়াইয়ের মাধ্যমেই কেবল ফিলিস্তিন মুক্ত হবে: হিজবুল্লাহ
শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:১৫ অপরাহ্ন
add

সাবমেরিন কেবল জোড়া লাগায় গতি ফিরে পেল ইন্টারনেট

কওমি ভিশন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১০ আগস্ট, ২০২০
add

কওমি ভিশন ডেস্ক: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় কাটা পড়া সাবমেরিন কেবল জোড়া লাগানো হয়েছে। এতে ইন্টারনেটের ধীরগতির সমস্যারও সমাধান হয়েছে।

গতকাল রোববার রাতে সাবমেরিন কেবল জোড়া দিতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ কেবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল)।

কলাপাড়ায় দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল ল্যান্ডিং স্টেশনের উপমহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মো. তরিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এখন ইন্টারনেটের গতি পুরোপুরি আগের মতো।’

কলাপাড়ায় মাটি কাটার যন্ত্র (এক্সকাভেটর) দিয়ে মাটি কাটতে গিয়ে কাটা পড়েছিল দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল লাইন। উপজেলার লতাচাপলি ইউনিয়নের গোড়া আমখোলাপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। গতকাল রোববার সকাল ১০ থেকে বেলা ১১টার মধ্যে এই ঘটনা ঘটার পর দেশজুড়ে গ্রাহকেরা ইন্টারনেটের ধীরগতির সমস্যায় পড়েন।

ঘটনার পর ডিজিএম তরিকুল ইসলাম জানান, লতাচাপলি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আনসার উদ্দিন মোল্লার নিয়োজিত শ্রমিকেরা পাশের একটি জমির চারদিকে বাঁধ দিচ্ছিলেন। এক্সকাভেটর দিয়ে মাটি কেটে তোলার সময় কেবলটি কেটে ২০ ফুট ওপরে উঠে যায়।

অবশ্য আনসার উদ্দিন মোল্লা বলেন, সেভেন স্টার নামের একটি বেসরকারি সংস্থা ওই এলাকায় জমি কিনেছে। অসাবধানতায় তারটি কেটে যায়।

দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ৪০ শতাংশের মতো ব্যান্ডউইথ আসে দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবলের (এসইএ-এমই-ডব্লিউই-৫) মাধ্যমে, যার ল্যান্ডিং স্টেশন পটুয়াখালীর কলাপাড়ায়।

বাংলাদেশ ২০০৫ সালে প্রথম সাবমেরিন কেবল ‘সি-মি-উই-৪’-এ যুক্ত হয়। এরপর ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল ল্যান্ডিং স্টেশনের মাধ্যমে সি-মি-উই-৫ সাবমেরিন কেবলে যুক্ত হয়। এর মাধ্যমে সাউথইস্ট এশিয়া-মিডলইস্ট-ওয়েস্টার্ন ইউরোপ আন্তর্জাতিক কনসোর্টিয়ামের সাবমেরিন কেবল থেকে সেকেন্ডে ১ হাজার ৫০০ গিগাবাইট (জিবি) গতির ব্যান্ডউইথ পায় বাংলাদেশ।

Leave a comment

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: