শিরোনাম
ম্যাক্রোঁর ইসলাম বিদ্বেষী কর্মকাণ্ডের সমর্থনে ভারতজুড়ে হ্যাশট্যাগ নাজিরহাট মাদ্রাসার মুহতামিম নির্ধারণের লক্ষ্যে মজলিসে শূরার বৈঠক আজ আগামী শুক্রবার বাদ জুমা সারাদেশে হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশকারী ফ্রান্সের ম্যাগাজিন ‘শার্লি হেবদো’র ওয়েবসাইটে সাইবার হামলা চালিয়ে ডাউন করেছে বাংলাদেশি হ্যাকাররা ফ্রান্সের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সবার আগে জুনাইদের বুক থাকবে : আল্লামা বাবুনগরী পেশোয়ারের মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে আল্লামা তাকী উসমানী ফ্রান্সে মহানবীর অবমাননার প্রতিবাদে জামিয়া বাবুনগরের মসজিদে প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত ফ্রান্সের তাগুতি শক্তি অচিরেই ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবে : খেলাফতে যুব মজলিস চট্টগ্রাম পাকিস্তানের পেশোয়ারে মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী হামলা; নিহত ৭, আহত ৭০ এর অধিক ‘ফরাসি পণ্য বয়কট করুন’: তুর্কি জনগণের প্রতি এরদোগানের আহ্বান
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন
add

৭১ টিভিতে আমাকে জড়িয়ে জঘন্য মিথ্যাচার করা হয়েছে; ক্ষমা না চাইলে মামলা করব : কারী রিজওয়ান আরমান

কওমি ভিশন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
add

সম্প্রতি হাটহাজারীর ছাত্র আন্দোলন ইস্যুতে বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন ৭১ টিভির একটি প্রোগ্রামে রাকিবুল ইসলাম নামক এক লোক হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মরহুম মাওলানা কাতেব সোলাইমান আরমান রহ. -এর সন্তান হাটহাজারী স্বনাম ধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সওতুল কোরআন মাদ্রাসার পরিচালক হাফেজ মাওলানা কারী রিজওয়ান আরমানকে জড়িয়ে মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করে। এ মিথ্যা তথ্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন মাওলানা কারী রিজওয়ান আরমান। তিনি দাবি করেন, যেদিন হাটহাজারীতে ছাত্রদের আন্দোলন হয় সেদিন আমি হাটহাজারীতেই ছিলাম না। একটি জরুরি কাজে শহরে ছিলাম। আন্দোলনের সাথে আমার সম্পৃক্ততার যে দাবি করা হয়ে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচার। রাকিব নামক এই লোক আমাকে চিনেও না। একটি চিহ্নিত মহল তার মাধ্যমে আমার নামে ঘৃণ্য অপপ্রচার চালাচ্ছে।

৭১ টিভিতে অপপ্রচারের প্রদিবাদ জানিয়ে মাওলানা রিজওয়ান আরমানে পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে একটি প্রতিবাদ পাঠানো হয়। সেখানে তিনি বলেন,

৭১ টিভির এক টকশোতে রাকিব নামের এক ব্যক্তি আমাকে জড়িয়ে যে মিথ্যাচার করেছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। শায়খুল ইসলাম আল্লামা আহমদ শফি সাহেব রহ. -এর মৃত্যু নিয়ে একটি দালাল গোষ্ঠী পাগলা কুকুরের মতো ঘেউ ঘেউ করছে। এখন তারা কার নাম বিক্রি করে নিজের অসাধু সাধন করবে কিংবা নিজেকে জাহির করবে তা নিয়ে তারা শঙ্কিত।
এখন তাদের মুখোশ উন্মোচিত হয়ে গেলো।

শান্তিপূর্ণ ছাত্র আন্দোলন চলাকালীন বাহির থেকে কেউ ভিতরে প্রবেশ করা এবং ভিতর থেকে কেউ বাহিরে যাওয়া অসম্ভব একটা ব্যাপার ছিল। তাছাড়া ছাত্র আন্দোলনের শুরু থেকে আমি হাটহাজারীর বাহিরে ছিলাম। এটা অনেকের কাছে স্পষ্ট।

আমার প্রতিষ্ঠান এবং বাসা হাটহাজারী মাদরাসার পাশে। সে হিসেবে সর্বোপরি আমার অবস্থান মাদরাসার পাশে থাকাটাই স্বাভাবিক। মাইকে যখন হুযুর সুস্থ আছেন মর্মে হুযুরের নাতি ওয়াজাহাত করছিলেন তখন আমি ডাক বাংলো রোডে সম্ভবত কয়েকজন পুলিশ ভাইয়ের সাথে কথা বলতেছিলাম। বাকি সময়ে অন্য দশজন ব্যক্তির মতো দর্শকের ভূমিকায় ছিলাম।

আল্লামা আহমদ শফি রহিমাহুল্লাহ আমার উস্তাজ এবং শায়খ। হযরতের সাহেবজাদা আনাস আর আমি
শুরু থেকে তাকমিল পর্যন্ত একই ব্যাচের হওয়াতে আমাদের মাঝে একটা সুসম্পর্ক ছিল। ২০০২ সালের পর থেকে আমি ভিন্ন মাদরাসায় খেদমত থাকাকালীন বিভিন্ন সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে একত্রিত হলেও কোন সময় আদর্শিকভাবে এক ছিলাম না। সেটা প্রকাশ্যে কিংবা গোপনে।

আমি কোন সময় কারো বিরুদ্ধাচারণ করিনা এবং নিজেকে ব্যক্তিগতভাবে হাইলাইটস করার চেষ্টাও করিনা। মরহুম মাওলানা কাতেব সোলাইমান আরমান রহ. যেমন নিষ্কলুষ ভাবে সাদামাটা জীবন অতিবাহিত করে গেছেন, তেমনি তাঁর ছেলেদেরও সেভাবে জীবন যাপনের নসীহা করে গেছেন। আমরাও তা পালনে যথাসাধ্য চেষ্টা করি।

বর্তমান সময়ে আমি এবং আমাদের পরিবার (আরমান ফ্যামিলি) নিয়ে অনেক দালাল গোষ্ঠীর অপপ্রচার দেখতে পাচ্ছি। কী কারণে তাদের এ-ই চুলকানি তারও অনুসন্ধান করার চেষ্টা করছি।

দালাল রাকিব আমাকে নিয়ে যে মিথ্যাচার করেছে তা নিঃসন্দেহে অন্য কোন দালালের শিখিয়ে দেয়া বুলি। কেননা! রাকিবের সাথে আমার ব্যক্তিগতভাবে যেমন সম্পর্ক নেই, তেমন দুশমনিও নেই। সে হয়তো আমার নামও জানতো না। সে আমার অনেক জুনিয়র।

এ-ই পর্যন্ত ঘটে যাওয়া অপ্রত্যাশিত অভিযোগটা আমার মারাত্মক সম্মান হানী হলেও আমি নিজেকে সংযত রাখার চেষ্টা করেছি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা, অনাকাঙ্ক্ষিত অভিযোগ প্রত্যাহার না করলে, কিংবা আমি হয়রানি মূলক কোন পরিস্থিতির সম্মুখীন হলে আমিও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করতে বাধ্য হবো।

ছাত্র আন্দোলন এবং শায়খুল ইসলামের মৃত্যু নিয়ে যারা ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের স্বপ্ন দেখছেন, তাদেরকে সতর্ক হয়ে যাওয়ার আহবান করছি। দয়া করে একই গুষ্টিতে বিবাদ সৃষ্টি করবেননা। কওমিকে অনেক অপব্যবহার করেছেন। এবার কওমি অঙ্গনকে স্বগৌরবে চলার সুযোগ দিন। আল্লাহ সবাইকে হেদায়াত দান করুন।

Leave a comment

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: